This news has no attached video clip.

২০ কৌটা ভর্তি ব্রাউন সুগারসহ আটক নেশা কারবারি, ঘটনা ইরানি থানার অন্তর্ভুক্ত ধলিয়ারকান্দি গ্রামে

June 13, 2022, 6:03 p.m.
Total Views: 170

জনতার কলম প্রতিনিধি:- আবারও বড়সড় সাফল্য পেলো ঊনকোটি জেলার ইরানি থানার পুলিশ। সোমবার দুপুরে ইরানি থানার পুলিশের নিজস্ব গোপন সোর্সের খবরের ভিত্তিতে ইরানি থানার পুলিশ অফিসার সনেছ দেববর্মার নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ এবং টি.এস.আর ইরানি থানার অন্তর্ভুক্ত ধলিয়ারকান্দি গ্রামের চৌমুহনী বাজার এলাকা থেকে হেকিম আলী নামে এক যুবককে তল্লাশি করে হেকিম আলীর কাছ থেকে কূড়িটি কৌটা ভর্তি ব্রাউন সুগার উদ্ধার করে। এবং সাথে সাথেই পুলিশ হেকিম আলীকে গ্রেফতার করে ইরানি থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ অফিসার সনেছ দেববর্মা জানান যে, ধৃত হেকিম আলীর কাছ থেকে ব্রাউন সুগারের পাশাপাশি দুইটি মোবাইল এবং নগদ পাঁচশো টাকা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। ধৃত হেকিম আলী নিজে নেশা সেবন করার পাশাপাশি ব্রাউন সুগার সহ বিভিন্ন নেশাসামগ্রী বহু দিন ধরে অবৈধভাবে বিক্রি করে আসছিলো। ধৃত হেকিম আলীকে ইরানি থানার গারদে রেখে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে বলেও জানান পুলিশ অফিসার সনেছ দেববর্মা। উল্লেখ্য, ইউসুফ আলীর ছেলে ধৃত হেকিম আলীর বাড়ি ধলিয়ারকান্দি গ্রামে। হেকিম আলী এর আগেও বহু মামলায় কয়েকবার জেলে ছিলো। গ্রেফতার হবার পর হেকিম আলী নিজেও সংবাদ প্রতিনিধিদের মুখোমুখি হয়ে নেশাসামগ্রী সহ পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে বলে স্বীকার করেছ। তবে, নেশা বিক্রেতা হেকিম আলীর সাথে আরও কয়েকজন জড়িত রয়েছে বলে স্থানীয় মানুষের অভিমত। পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে আরও অনেক তথ্য বেরিয়ে আসবে বলে অনেকেই আশাবাদী। উল্লেখ্য, গত পনেরো দিন পূর্বে বাবুরবাজার এলাকায় গ্রাহক পরিসেবা কেন্দ্রের লকার ভেংগে নগদ টাকা চুরির চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই দুইজনকে গ্রেফতার করেছিলো ইরানি থানার পুলিশ। এরপর সোমবার নেশাসামগ্রী সহ নেশা বিক্রেতাকে আটক করায় ইরানি থানার পুলিশের ভুমিকায় সাধারণ মানুষেরা খুবই খুশি।









© Copyright, 2022. Janatarkalam, India. All Rights Reserved. Developed and Maintained by Chevichef Private Limited.

Images published in the Image Gallery are subjected to Copyright of the photographer under The Copyright Act, 1957 of the Republic of India. Any unauthorized use of any image is prohibited.